স্কিল

ভালো ইংরেজি শেখার কার্যকরি সেরা ১০ উপায়

ভালো ইংরেজি শেখার কার্যকরি সেরা ১০ উপায়

শিক্ষার্থী কিংবা চাকরিজীবি যেই হোক না কেন, কিভাবে ইংরেজি শিখবো সবারই এটি নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকে। শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় ভালো নম্বর তোলার জন্য ইংরেজি প্রয়োজন, অপরদিকে চাকরিজীবিদের কাজে প্রমোশনোর জন্য ইংরেজিতে দক্ষতা দরকার। মোট কথা, এই আধুনিক যুগের সাথে তাল মেলাতে সবারই ইংরেজি জানা বাধ্যতামূলক।

এখনকার সময়ে ইংরেজিতে দক্ষতা থাকলে ভালো চাকরি মেলে, পাওয়া যায় বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ। এছাড়া কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা কেবল ইংরেজির ওপরই আলাদা স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে, ইংরেজি শেখার প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব কতখানি।

যেই ইংরেজি শিখলে এত সুবিধা পাওয়া যায়, সেই ইংরেজি দেখলেই আমরা ভূত দেখার মত ভয় পাই। আমরা কয়েকটি সিনেমা দেখলে হিন্দী ভাষা শিখে যাই, অথচ ১০/১২ বছর পাঠ্যবইয়ে পড়ার পরও ইংরেজি শিখতে পারি না। ইংরেজি কি আসলেই এত কঠিন?

একদমই না। বাংলার মত ইংরেজিও একটি ভাষা, সহজ একটি ভাষা। কিছু কৌশল রপ্তের মাধ্যমে আমরা এ ভাষাটি আয়ত্বে আনা আরো সহজ করে তুলতে পারি। যেহেতু ইংরেজি আন্তর্জাতিক ভাষা এবং জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে এর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, তাই যেভাবেই হোক এ ভাষাটিতে দক্ষতার্জন করতে হবে।

কিভাবে ইংরেজি শিখবো?

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা কিভাবে ইংরেজি শিখবো তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। পাশাপাশি ইংরেজি শেখার ১০ টি সহজ ও তথ্যবহুল কৌশল তুলে ধরবো। আমি পূর্ণাঙ্গ আশাবাদি, এ কৌশলগুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করলে ইংরেজি শেখা আপনার জন্য সহজ থেকে সহজতর হয়ে উঠবে। তাহল চলুন, শুরু করি।

১. গ্রামার গিলে খাবেন না

মনে করুন একজন লেখাপড়া না জানা ব্যক্তিকে যদি লন্ডন পাঠানো হয় তাহলে কি সে ৬ মাস থেকে ১ বছরের মধ্যে ইংরেজীতে মোটামুটি ফ্লুয়েন্ট হয়ে যায় না? এটা কি সে কি গ্রামার শিখে করে? নাকি জাস্ট কথা বলতে থাকে এবং অন্যদের সাথে ইংলিশে কমিউনিকেট করতে থাকে? অবশ্যই গ্রামারের থেকে কমিউনিকেটিং স্কিল এক্ষেত্রে বেশি গুরুত্ব রাখে।

আরো পড়ুন : চাকরীতে যে ৭ টি বেসিক কম্পিউটার স্কিল থাকা প্রয়োজন

সুতরাং আপনি যদি প্রথমেই গ্রামারের দিকে ফোকাস করতে যান তাহলে আপনার ইংরেজি শেখার গতি অনেক স্লো হয়ে যাবে এবং সহজেই হতাশ হয়ে পড়বেন। মজার ব্যাপার হচ্ছে ন্যাটিভ ইংলিশ স্পিকারদের ৮০% ই গ্রামার ভালো জানেন না। তাই ইংলিশ শিখতে গেলে শুরুতেই গ্রামারের দিকে ফোকাস করা বাদ দিতে হবে। হাঁ তবে একটু এফিসিয়েন্সী আসার পর তখন গ্রামার নিয়ে আগানো যেতেই পারে।

২. আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলুন

কোন একটি ভাষায় জড়তা কাটিয়ে ওঠার সবচেয়ে কার্যকরী পদ্ধতি হচ্ছে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজে নিজে কথা বলা। ইংরেজি আপনার জন্য একটি বিদেশি ভাষা। তাই এ ভাষায় জড়তা আসবে এটাই স্বাভাবিক। এ জড়তা দূর করতে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে পড়ুন এবং নিজের দিকে তাকি ইংরেজিতে কোন বিষয় নিয়ে কথা বলতে থাকুন। এটি অনুশীলনের মাধ্যমে আপনার মুখেরর জড়তা কেটে যাবে। পাশাপাশি লজ্জাভাবটাও আয়ত্বে চলে আসবে।

৩. প্রচুর Vocabulary শিখুন

আপনি যখন কোন একটি ভাষা শিখতে যাবেন, সেই ভাষার শব্দ ভাণ্ডার আগে আপনাকে আয়ত্বে আনতে হবে। এমনকি মাতৃভাষা বাংলাও শব্দের ব্যবহার ছাড়া অসাড়। তাই ইংরেজিতে অনর্গল কথা বলার জন্য প্রচুর Vocabulary মুখস্থ রাখুন।

Vocabulary আপনার ভেতরে শব্দের এক শক্তিশালি বেজ তৈরি করবে। ফলে ইংরেজি বলার সময় কোন শব্দগুলো কোথায় ব্যবহার করতে হবে, তা সম্পর্কে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন। ইংরেজি গুরুত্বপূর্ণ শব্দ শেখার অতি প্রয়োজনীয় একটি বই হচ্ছে জনপ্রিয় লেখিকা মুনজেরিন শহিদের লেখা সবার জন্য ভোকাবুলারি।

দারুণ এ বইটি আপনাকে শেখাবে কিভাবে খুব সহজে ইংরেজি শিতে হয়। পাশাপাশি দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত অতি গুরুত্বপূর্ণ শব্দগুলো শিখতে পারবেন এই বইটি থেকে। অনলাইনে টেন মিনিট স্কুলের এ বইটি প্রায় দেড় লক্ষের অধিক বিক্রি হয়েছে।

মাত্র ৬৫ টাকার এ বইটি কিনে আপনিও সফলভাবে ইংরেজি ভোকাবুলারি শেখার কাজটি সম্পন্ন করতে পারেন। যা পরবর্তী আপনার ইংরেজি শেখার গতিকে আরো বাড়িয়ে দেবে। নিচের বাটনে ক্লি করে বইটি মাত্র ৬৫ টাকায় (বিকাশ/নগদ) কিনে নিন।

৪. ইংরেজি শিখুন মোবাইল অ্যাপ দিয়ে

মোবাইল অ্যাপের মাধমে ইংরেজি অনুশীলনের থেকে ভালো আর কি হতে পারে? কেননা আপনি যখন খুশি, যেখানে খুশি, চলতে-ফিরতে আপনার ইংরেজি পাঠগুলো অনুশীলন করে নিতে পারেন।

সত্যিকার অর্থেই তাই। Google Play Store এ এমন অনেক English Learning Android App আছে, যা দিয়ে আপনি সহজে এবং বিনামূল্যে ইংরেজি শিখতে পারবেন। এ অ্যাপগুলো বেসিক থেকে এডভান্সড সবার জন্য বেশ সুবিধাজনক। এমন কিছু অ্যাপ হচ্ছে;

  • LearnEnglish Grammar (UK edition)
  • Knudge
  • Quizlet
  • Learn English Grammar
  • Busuu

উপরে উল্লেখিতে প্রতিটি অ্যাপ একদম ফ্রি এবং সারাবিশ্বের লাখ লাখ ব্যবহারকারীদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। এর মধ্য কিছু অ্যাপ রয়েছে, যাতে আপনি টেস্ট দিতে পারবেন। আবার কিছু অ্যাপে বিশাল কমিউনিটির সাথে ইংরেজি কথা বলে প্রাকটিসও করতে পারবেন।

৫. ইংরেজি পত্রিকা পড়ুন

প্রত্রিকা যেকোন ভাষার অফুরন্ত এক তথ্য ভাণ্ডার। আপনি যখন কোন একটি ভাষার পত্রিকা পড়েন, তখন ওই ভাষার অনেক কিছুই আপনার জানা হয়ে যায়। ইংরেজির ক্ষেত্রেও ঠিক তাই। সুতরাং প্রতিদিন একটি করে ইংরেজি সংবাদপত্র পড়ার চেষ্টা করুন।

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ কিছু ইংরেজি সংবাদপত্র হচ্ছে The Daily Star, The Asian Age, The Bangladesh Observer ইত্যাদি। যেকোন একটি পত্রি সংগ্রহ করুন এবং অর্থ বুঝে বুঝে সম্পূর্ণ পত্রিকাটি পাঠা করুন। এতে করে আপনার ইংরেজি ঝালাই করা হবে, পাশাপাশি দেশ-বিদেশের সংবাদও জানা হবে।

৬. ইংরেজি মুভি বা সংবাদ দেখুন

ইংরেজিতে কথা বলার একটি স্মার্ট পদ্ধতি হচ্ছে ইংলিশ অ্যাকসেন্ট (বাচনভঙ্গি) অনুসরণ করা। ইংরেজি যাদের মাতৃভাষা, তাদের মত করে স্মার্টলি ইংরেজি বলতে চাইলে তাদের বাচনভঙ্গি আয়ত্বে আনতে হবে। যেমন আমরা বলি Education (এডুকেশন)। কিন্তু একজন আমেরিকান এই একি শব্দকে বলবে এজুকেশন। এখানেই পার্থক্য।

যেহেতু সরাসরি আপনার কোন ন্যাটিভ ইংলিশ স্পিকারের সাথে কথা বলার বা শোনার সুযোগ নেই, তাই ইংরেজি সিনেমা বা টেলিভিশন সংবাদ হতে পারে অন্যতম সুযোগ। সিনেমা দেখে আপনি ইংরেজি অ্যাকসেন্ট রপ্ত করতে পারেন। টিভি নিউজও এক্ষেত্রে বেশ কার্যকরি হবে।

এর ফলে বিদেশিরা ইংরেজি শব্দগুলো কীভাবে উচ্চারণ করে, আপনি তা অবগত হবেন। একই সাথে বিভিন্ন শব্দ উচ্চারণের সময় মুখের ভঙ্গিমা (Expression) সম্পর্কে জানতে পারবেন। যা আপনাকে ইংরেজি শেখার এডভান্স লেভেলে নিয়ে যাবে।

তবে শুরুতেই আমেরিকান মুভিগুলো না দেখাই ভালো। কারণ, শুরুতেই এসব এডভান্স মুভির ডায়লগ আপনার জন্য সহজ মনে হবে না। তাই শুরু করুন উপমহাদেশীয় ইংরেজি শর্টফিল্মগুলো দিয়ে। যেমন ভারতীয় অনেক শর্টফিল্ম রয়েছে, যা ইংরেজিতে তৈরি। এ ফিল্মগুলোর ডায়লগ নতুনদের জন্য অনেক সহজবোধ্য হয়ে থাকে।

৭. ইংরেজি কোর্স করুন

আপনি যদি মনে করেন কোন প্রতিষ্ঠানে কোর্স করার মাধ্যমে আপনার ইংরেজি আরো বেশি পারফেক্ট করা সম্ভব, তবে ইংরেজি কোর্স করতে পারেন। বর্তমানে ইংরেজি কোর্স করতে কোন ট্রেনিং সেন্টার বা কোচিংয়ে যেতে হয় না। অসংখ্য অনলাইন শিক্ষা প্লাটফর্ম রয়েছে, যারা খুব ভালো মানের ইংরেজি কোর্স প্রোভাইড করে থাকে।

বাংলাদেশে এমনই একটি জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান হচ্ছে টেন মিনিট স্কুল। এখানে আপনি প্রিয় শিক্ষক মুনজেরিন শহীদ এর সাথে আপনি সঠিকভাবে এবং সাবলীলভাবে দৈনন্দিন জীবনে ইংরেজিতে কথা বলা শিখে যাবেন। তার ঘরে বসে Spoken English কোর্সটি এখন পর্যন্ত 107,903 + মানুষ সম্পন্ন করেছে।

এই কোর্সটির মূল্য রাখা হচ্ছে মাত্র 350 টাকা। যা আপনি বিকাশের মাধ্যমে খুব সহজেই পরিশোধ করতে পারবেন। নিচে দেওয়া ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে মুনজেরিন শহীদের ঘরে বসে Spoken English কোর্সটি এখনি কিনে নিন।

৮. বন্ধুদের সাথে গ্রুপ স্টাডি করুন

ভাষা শিক্ষা হোক অথবা অন্যকিছু; গ্রুপ স্টাডির বিকল্প কিছু নেই। গ্রুপ স্টাডি আপনাকে সাহায্য করবে সবার মতামত নিয়ে ইংরেজি শিখতে। সময় পেলে বন্ধু বা কাছের লোকদের নিয়ে বসুন এবং ইংরেজি প্রাকটিস করুন। একে অন্যকে প্রচুর প্রশ্ন করুন, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অালোচনা করুন।

এতে হয়তো অনেক ভুল বের হয়ে আসবে। এমনও হতে পারে, যা আপনি এতদিন সঠিক বলে জেনে এসেছেন, তা ভুল এবং সেই ভুল আপনার গ্রুপ মেম্বাররা আপনাকে ধরিয়ে দিল। তাই ইংরেজি শিখতে গ্রুপ স্টাডি করুন এবং সবার মতামত গ্রহণ করুন।

৯. স্পোকেন শিখুন

ইংরেজি শিখে তা প্রয়োগের চূড়ান্ত ধাপ হচ্ছে স্পোকেন। আপনি ইংরেজি জানেন, কিন্তু কোথাও বলার প্রয়োজন হলে তখন বলতে পারেন না। এর মানে আপনি ইংরেজির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপটিতেই ব্যর্থ। স্পোকেনে ভালো করতে না পারলে আপনার ইংরেজি শেখা সম্পূর্ণ নিরর্থক হয়ে যাবে।

স্পোকেন কি? ইংরেজিতে স্বাচ্ছন্দ মত কথা বলাই স্পোকেন ইংলিশ। আপনি যখন কারো সাথে ইংরেজিতে কথা বলার মাধ্যমে মনের ভাব প্রকাশ করতে পারবেন, তখন তাকে স্পোকেন ইংলিশ বলা হয়। ভালো চাকরি পেতে কিংবা বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে হলে স্পোকেন ইংলিশে ভালো দক্ষতা থাকা বাধ্যতামূলক।
ইংরেজিতে স্পোকেন শেখার দুর্দান্ত একটি বই হচ্ছে ঘরে বসে স্পোকেন ইংলিশ। আপনি কোথাও কোচিং না করে শুধুমাত্র এ বইটির সাহাযে ইংলিশ স্পোকেনে অনেক এগিয়ে যেতে পারেন। এ বইটি আপনাকে শেখাবে:
  • কীভাবে ইংরেজিতে প্রশ্ন করতে হয়
  • কীভাবে প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়
  • কীভাবে নতুন কারো সাথে পরিচিত হতে হয়
  • কর্মক্ষেত্রে কীভাবে ইংরেজি বলতে হয়

এগুলো ছাড়াও আমাদের জীবনে প্রতিদিন ব্যবহার করতে হয় এমন শত শত বাক্য এ বইয়ে আপনি পাবেন। সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে এর সবকিছুই আপনি পাচ্ছেন বাংলায় ব্যাখ্যাসহ। চমৎকার এ বইটির PDF মূল্য মাত্র ৬৫ টাকা। নিচের বাটনে ক্লিক করে বইটি কিনে আপনার স্পোকেন ইংলিশ শেখার যাত্রা আরো মসৃণ করে তুলুন।

১০. নিজের সাথে কথা বলুন

কোথাও কোন বক্তব্য প্রেজেন্ট করার থাকলে আগে নিজের কাছে প্রেজেন্ট করুন। একা একা কথা বলার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে আপনি নিজের সাথে নিজে যা খুশি তাই বলকে পারেন। ফলে আপনার ভেতরে কথার এক বিশাল ভাণ্ডার তৈরি হবে।

অনেক সময় দেখা যায়, আমরা ইংরেজিতে কথা বলার সময় জানা বাক্যগুলোও এলোমেলো করে ফেলি। কিন্তু আপনি যখন নিজে নিজে একবার অনুশীলন করবেন, এই সমস্যাটি হওয়ার সম্ভাবনা আর থাকবে না। এই অনুশীলনটি করলে আপনি কোথাও ইংরেজিতে স্পিকিং করার আগে নিজেকে প্রস্তুত করে নিতে পারবেন।

শেষ কথা

কোর্সটিকায় আজকের এই আলোচনায় আমরা কিভাবে ইংরেজি শিখবো এ বিষয়ে কথা বললাম। সত্যিকার অর্থে ভালো করে কোনো কিছুর শেখার শেষ নেই। ভালোর কোনো সীমাবদ্ধতাও নেই। একজনের কাছে যা ভালো, অন্যের কাছে তা হয়তো বেসিক। তবে আমরা যেটা পারি, নিয়মিত চর্চা করা উচিত।

সবশেষে নিজের একটি ছোটো অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে চাই। একটি প্রজেক্টে কাজ করার সময় একজন আমেরিকানের সাথে আমার কাজ করার সুযোগ হয়েছিলো। তার সাথে কথা বলার সময় আমি একটু ইতস্তত বোধ করছিলাম। সে সেটা বুঝতে পেরে আমাকে জাস্ট একটা কথা বলেছিলো যা আমাকে এখনো সাহস যোগায়। কথাটি ছিলো এমন, “Nasir, why you are feeling shy while talking in English? It’s your strength that you know English as it’s not your mother tongue. It’s my lacking that I don’t know Bengali. So, keep going.”

এই বিভাগ থেকে আরো পড়ুন

নার্সিং পড়তে চাইলে যে বিষয়গুলো আপনার জানা প্রয়োজন

ইংরেজিতে ভালো করার ১০টি গোপন কৌশল

চাকরীতে যে ৭ টি বেসিক কম্পিউটার স্কিল থাকা প্রয়োজন

লেখাপড়া